Breaking News

ছোয়াদ গার্মেন্টসের ৭১ জন শ্রমিক ছাঁটাইয়ের নির্দেশনা বাতিলের দাবি

Women-garments-1
গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমরেড আ ক ম জহিরুল ইসলাম এক বিবৃতিতে ছোয়াদ গার্মেন্টস লিমিটেড  ৭১ জন শ্রমিক ছাঁটাই, ৬২ জন শ্রমিকের ছবি টাঙিয়ে তারা যাতে কোন কারখায় কাজে যোগ দিতে না পারে মালিক পক্ষের এধরনের ন্যাক্কারজনক নির্দেশনা প্রদানের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
বিবৃতিতে তিনি বলেন, ছোয়দ গার্মেন্টস ইন্ডার্স্টি লিমিটেড আদমজি ইপিজেডে প্রথম দফায় ১৯ জন শ্রমিককে টার্মিনেট করে। দ্বিতীয় দফায় ঐ গার্মেন্টসের ৭১ জনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে বরখাস্ত করে। এ সব শ্রমিকদের মধ্যে ৬২ জনের ছবি টাঙিয়ে দেয় যাতে তারা কোন কারখানায় কাজে যোগ দিতে না পারে— যা সম্পূর্ণ অন্যায় ও অযৌক্তিক। এমনিতেই গার্মেন্টস কারখানাগুলোতে শ্রমিকরা তাদের দাবি-দাওয়ার ভিত্তিতে সংগঠিত হতে পারে না। গার্মেন্টস কারখানাগুলোতে ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার নেই। গার্মেন্টস শ্রমিকরা তাদের কারখানায় কাজের সুষ্ঠু কর্মপরিবেশ, ন্যূনতম মুজুরি ১৬ হাজার টাকা এবং ট্রেড ইউনিয়নের অধিকারের দাবিতে ধারাবাহিক ভাবে আন্দোলন করে আসছে। এর মধ্যে ৭১ জন শ্রমিককে ছাঁটাই এবং ছবি টাঙিয়ে ৬২ জন শ্রমিকের পরিচয় পত্র প্রকাশ করে যে কোন কারখানায় কাজে যোগ দিতে বাধা প্রদান করা সম্পূর্ণ অন্যায্য এবং অগণতান্ত্রিক। গার্মেন্টস মালিকরা তাদের কারখানায় শ্রমিকদের শ্রমদাসের মত খাটিয়ে মুনাফার পাহাড় গড়ছে। শ্রমিকরা ন্যূনতম অধিকারে দাবি নিয়ে রাস্তায় নামলে সরকার মালিকের পক্ষ নিয়ে শ্রমিকদের পুলিশ দিয়ে নির্যাতন করে শ্রমিক আন্দোলন দমন করে।
তিনি বিবৃতিতে অবিলম্বে ছোয়াদ গার্মেন্টসের মালিকের বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান এবং শ্রমিকদের মালিকের এধরনের অগণতান্ত্রিক ও অন্যায় আচরণের বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ প্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

Check Also

27788054_530032330704570_666762098986785959_o

সালমান সিদ্দিকী সভাপতি ও প্রগতি বর্মণ তমা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ১১তম সম্মেলন  ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ সকাল সাড়ে ১১টায় ঐতিহাসিক …