Breaking News

মন্টি চাকমা ও দয়াসোনা চাকমার অপহরণ ঘটনার ক্ষোভ ও নিন্দা

29314512_2015231265398125_8004874422096220496_nবাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সীমা দত্ত ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদাউস এক যুক্ত বিবৃতিতে ১৮ মার্চ’১৮ রাঙামাটির কুদুকছড়ি এলাকার নিজ বাসা থেকে হিলউইমেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও সদস্য, রাঙামাটি জেলার সধারণ সম্পাদক দয়াসোনা চাকমার অপহরণের ঘটনার তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানান এবং অপহৃত নেত্রীদ্বয়ের অবিলম্বে উদ্ধারের দাবি জানান।
নেতৃবৃন্দ বলেন,“সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া দুই মারমা কিশোরী ধর্ষণের ঘটনার বিচারের দাবিতে যে আন্দোলন গড়ে উঠেছে তার অন্যতম সংগঠক মন্টি চাকমাকে অপহরণের ঘটনা আবারও প্রমাণ করেছে এ সরকার অন্যায়কারীদের প্রশ্রয় দিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামের জাতিগত সমস্যাকে জিইয়ে রাখতে চাইছে। দুই মারমা কিশোরী ধর্ষণের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এই অপহরণ ও হামলার ঘটনা আন্দোলনকে বানচাল করার চক্রান্ত। এই অপহরণের দায় সরকারকেই নিতে হবে। ২২ বছর আগে সেনাবাহিনী কর্তৃক হিল উইমেন ফেডারশনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক কল্পনা চাকমা অপহরণসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে ঘটে যাওয়া সকল নারী নির্যাতনের ঘটনার অবিলম্বে বিচার করতে হবে। দোষী সেনাবাহিনীসহ নিরাপত্তাবাহিনী এবং তাদের দোসরদের অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। অবিলম্বে মন্টি চাকমা এবং দয়াসোনা চাকমাকে নিরাপদে উদ্ধার করতে না পারলে দেশের সকল গণতান্ত্রিক মুক্তবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষ ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলবে।

Check Also

pic-2

সুন্দরগঞ্জে পুলিশী গুলিবর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

  গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের চরখোর্দ্দা ও লাঠশালার চরে বেক্সিমকো গ্রুপের মালিকানাধীন তিস্তা সোলার …