Tuesday, April 16, 2024
Homeসংবাদ ও প্রেস বিজ্ঞপ্তিপার্টি সংবাদসকলের জন্য করোনা টিকা ও বিনামূল্যে চিকিৎসার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ অনুষ্ঠিত

সকলের জন্য করোনা টিকা ও বিনামূল্যে চিকিৎসার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আজ ১১ আগস্ট ২০২১ বাসদ (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নির্বাহী ফোরামের উদ্যোগে ঢাকার পল্টন মোড়ে দুপুর ১২টায় দ্রুততম সময়ে সকলের জন্য কোভিড টিকা ও বিনামূল্যে চিকিৎসার আয়োজন, লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারি আর্থিক সহায়তা ও বিনা সুদে ঋণ, খুলনার রূপসায় সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার ও ক্ষতিপূর ইত্যাদি দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বাসদ (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নির্বাহী ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়কারী কমরেড ফখ্রুদ্দিন কবির আতিকের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী ফোরামের সদস্য কমরেড মানস নন্দী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাসুদ রানা। সমাবেশ পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী ফোরামের সদস্য ও পার্টির ঢাকা নগর শাখার ইনচার্জ কমরেড নাঈমা খালেদ মনিকা।

বক্তারা বলেন, গত বছরের ২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে করোনা মহামারি শুরু হয়েছে। বর্তমান এই মহামারি উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। সারাদেশে প্রতিদিন গরিব শ্রমজীবী মানুষ বিনা চিকিৎসায় অসহায়ভাবে মৃত্যুবরণ করছে। সরকারি জেলা হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই। দেশের মানুষকে করোনা মহামারির কবল থেকে রক্ষা করতে হলে দ্রুত সকল মানুষের জন্য কোভিড টিকার ব্যবস্থা করার দরকার এবং বিনামূল্যে চিকিৎসার ব্যবস্থা করার দরকার। সে ব্যবস্থা না করে এবং সরকার তার দুর্বলতা ঢাকতে মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে সরিয়ে নিতে নারীবিদ্বেষী মনোভাব সৃষ্টির অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

গত দুই বছর ধরে  করোনা মহামারি ঠেকাতে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত না করে, গরিব মানুষের জন্য খাদ্যসহায়তা নিশ্চিত না করে বারবার লকডাউন দেওয়াতে একদিকে লকডাউন যেমন কার্যকারিতা হারাচ্ছে, তেমনি শ্রমজীবী মানুষ তাদের কাজ হারিয়ে চরম আর্থিক কষ্টে নিপতিত হচ্ছে। তাদের ন্যূনতম খাওয়া-পরার ব্যবস্থা নেই। তাই লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের সরকারিভাবে আর্থিক সহায়তা প্রদান করে তাদের বেঁচে থাকার নিশ্চয়তা প্রদান করা দরকার বলে মনে করেন বক্তারা। বক্তারা বলেন, একদিকে মানুষের কাজ নেই খাদ্য নেই, চিকিৎসা নেই; অন্যদিকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বহীনতায় মানুষের জীবনে চরম দুর্দশা নেমে এসেছে। একদল ধর্মান্ধ গোষ্ঠী ধর্মের নামে সংখ্যালঘুদের উপর বর্বর হামলা চালাচ্ছে। খুলনায় শ্মশানযাত্রী হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর বিনা কারণে একদল উগ্র ধর্মান্ধ জনগোষ্ঠীর হামলা ন্যাক্কারজনক। এদেশে হিন্দু সম্প্রদায় মুক্তিযুদ্ধে সর্বাধিক নির্যাতিত হয়েছিল আর আজ স্বাধীনতার ৫০ বছরে মুক্তিযুদ্ধের দাবিদার সরকার ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বেও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর হামলার ঘটনা ঘটছে।

বক্তারা হামলার শিকার জনগোষ্ঠীর নিরাপত্তা ও অবিলম্বে দুষ্কৃতিকারীদের বিচারের দাবি জানিয়েয়েছেন।

RELATED ARTICLES

আরও

Recent Comments